লকডাউন শেষে নগরীতে তিব্র যানজট ও মানুষের ভিড়, সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে নগরবাসী

News News

Desk

প্রকাশিত: ১১:১১ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০২১

লিটন বাইজিদঃ টানা ১৪ দিনের লকডাউনে বরিশাল নগরীর রাস্তাঘাট ছিল ফাঁকা এবং মানুষের চলাচল ছিল কম। কিন্তু ১৫ তারিখ থেকে লকডাউন শিথিল করায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সারাদিনই বরিশাল নগরীর বিভিন্ন সড়কে দেখা গেছে মানুষের উপচে পড়া ভীর ও যানজট। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নগরীর নতুন বাজার, নতুল্লাবাদ চত্বর, সদর রোড, কাকলির মোর, বাংলাবাজার, চকবাজার সহ আরো বিভিন্ন এলাকার সড়কগুলোতে ছিল তীব্র যানজট। অবশ্য যানজট মোকাবেলায় প্রশাসনের ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়। অনেকদিন পরে সব কিছু খুলে দেয়ায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মানুষের ঢল নামে রাস্তাঘাটে। বিভিন্ন কাজে বের হওয়া মানুষ অটো, সিএনজি, রিকশা ও মোটরসাইকেলে করে চলতে দেখা গেছে নগরীর সড়কগুলোতে।

অনলাইন প্রতারণার শিকার বরিশালের এক কিশোর!

তীব্র যানজটের আরেকটি কারণ ছিল সড়কের পাশে অবৈধ পার্কিং। বিশেষ করে মোটরসাইকেল, মালবাহী পিকআপ ব্যক্তিগত গাড়ি গুলি সড়কের পাশে রেখে নিজেদের কাজ করায় বেশি যানজটের সৃষ্টি হয় রাস্তাঘাটে ।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে টানা ১৪ দিন ছিল কঠোর লকডাউন। লকডাউন শিথিল করার সুযোগে বাহিরে মানুষের ঢল নামে। ইতিমধ্যে বরিশালে করোনা সংক্রমণ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে দিন দিন। এভাবে চলতে থাকলে পরবর্তীতে বরিশালে করোনা সংক্রমণ আরো আশঙ্কাজনক হারে বাড়বে বলে ধারণা করছেন স্বাস্থ্যবিধরা।

এই যানজট নিরসনে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ বিভিন্নভাবে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। যানজট নিরসনে বর্তমানে কি কি পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে জানতে চাইলে বরিশাল মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগের প্রধান মোঃ জাকির হোসেন মজুমদার বলেন,
লককডাউন শিথিল হওয়ায় নগরীর সড়কে যান চলাচল বেড়েছে, তবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে আমাদের বিভিন্ন চেক পোস্টগুলোতে ছিল কঠোর নজরদারি এবং যানজট নিরসন ও মানুষের নিরাপদ চলাচলের ক্ষেত্রে ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তারা সবসময় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।