সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর জন্য অত্যাবশ্যকীয় স্বাস্থ্যসেবা” প্রকল্পের উদ্বোধন

News News

Desk

প্রকাশিত: ৬:৪১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২১

মোঃ সাইমুন ইসলাম, পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালী ১৬ মার্চ, ২০২১: আজ মঙ্গলবার ১৬ মার্চ, ২০২১ তারিখে যুক্তরাজ্য সরকারের পররাষ্ট্র কমনওয়েলথ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অফিস (এফসিডিও)-এর আর্থিক সহায়তায় এবং কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এর সার্বিক তত্তাবধানে “সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর জন্য অত্যাবশ্যকীয় স্বাস্থ্যসেবা” শীর্ষক প্রকল্পটি পটুয়াখালী পৌরসভায় উদ্বোধন হয়েছে। উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তারা উপকূলবর্তী জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবার সংকট মোকাবেলায় বিভিন্ন করণীয় ও পরিকল্পনা তুলে ধরেন যাতে এই অঞ্চলের জনগোষ্ঠী নির্বিঘে স্বাস্থ্যসেবা পেতে পারে। ইএইচডি প্রকল্পটির ৮টি বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে- সিবিএম, আইসিডিডিআর’বি, আইপাস, ডিআরআরএ, খুলনা মুক্তি সেবা সংস্থা (কেএমএসএস), পার্টনার্স ইন হেলথ্ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি), আরএইচস্টেপ এবং ডিজিটাল হেলথ্ কেয়ার সলিউশানস।

উক্ত প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জনাব, মোঃ মতিউল ইসলাম চৌধুরী, জেলা প্রশাসক, পটুয়াখালী। অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন পটুয়াখালী জেলার সিভিল সার্জন জনাব ডাঃ মোহাম্মাদ জাহাংগীর আলম। এছাড়াও সন্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী পৌরসভার মেয়র জনাব মহিউদ্দিন আহম্মেদ এর প্রতিনিধি পৌর কাউন্সিলর জনাব কাজল বরন দাস। এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব ডাঃ মোহাম্মদ আবদুল মতিন, তত্ত্বাবধায়ক, পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল , পটুয়াখালী। উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালা জেলা, উপজেলা ও পৌরসভা পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ন সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ এবং কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এর প্রতিনিধি কনসোর্টিয়াম ডিরেক্টর জনাব সুমন সেন গুপ্ত এবং হেলথ্ ফাইন্যান্সিং এডভাইজার জনাব মোঃ জাকির হোসেন সহ ইএইচডি প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সম্মানিত প্রতিনিধিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জনাব মোঃ মতিউল ইসলাম চৌধুরী, জেলা প্রশাসক, মহোদয় বলেন, “উপকূলবর্তী সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবা সংকট কাটিয়ে উঠতে প্রয়োজন সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার সমন্বিত প্রচেষ্টা। এই প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসুবিধা প্রাপ্তির হার বাড়াতে এই প্রকল্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এর পাশাপাশি তিনি এই প্রকল্পের জন্য সার্বিক সফলতা কামনা করেন এবং প্রকল্প বাস্তবায়নে সকল প্রকার সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন।”
অনুষ্ঠানের সভাপতি জনাব ডাঃ মোহাম্মাদ জাহাংগীর আলম, সিভিল সার্জন, পটুয়াখালী বলেন, “দেশের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ সকল সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর অত্যাবশ্যকীয় স্বাস্থ্যসেবা প্রাপ্তির হার এবং জরুরী স্বাস্থ্যসেবা সমূহের মান উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থা গুলোকে এগিয়ে আসতে হবে। এই প্রকল্পের ফলে উপকূলবর্তী প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে বলে আশা করেন। এতে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যজনিত ঝুঁকি হ্রাস পাবে। তিনি এই প্রকল্পের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে তার সার্বিক সহযোগিতার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।”
এই প্রকল্পের লক্ষ্য হচ্ছে বিভিন্ন ডিজিটাল ও উদ্ভাবনী কৌশলের মাধ্যমে পটুয়াখালী, ভোলা এবং বরগুনা জেলার নির্দিষ্ট এলাকার বিশেষ করে সুবিধাবঞ্চিত ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অত্যাবশ্যকীয় স্বাস্থ্যসেবার আওতায় এনে স্বাস্থ্য, পরিবার-পরিকল্পনা ও পুষ্টি সেবার উন্নয়নের একটি টেকসই মডেল নির্ধারণ ও বাস্তবায়ন করা।

উল্লেখ্য যে, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে এফসিডিও এর সহযোগিতায় সাড়ে তিন বছর মেয়াদী (২০১৯-২০২২) এই প্রকল্প, বরিশাল বিভাগের ৩টি জেলার মোট ৮টি উপজেলায় পার্টনার্স ইন হেলথ্ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) বাস্তবায়ন করছে। এছাড়াও খুলনা বিভাগের ৩টি জেলার ৭টি উপজেলায় এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে কে এমএসএস নামক একটি স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা।