শিবচর ৭১ চত্বরে সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম শিবচর শাখা

News News

Desk

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১
মোঃ রোমান জমাদ্দার, মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

১৯ শে ফেব্রুয়ারি নোয়াখালী কেম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুইপক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহতের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম শিবচর শাখা।

এসময় এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে সমাবেশও করা হয়।

মঙ্গলবার ১১.৩০ মিনিটে শিবচর ৭১ চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন ও সমাবেশ করা হয়।

সমাবেশে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম শিবচর শাখা নেতৃবৃন্দ ছাড়াও মানবাধিকার কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রতিনিধিরা বক্তব্য দেন।

প্রধান অতিথি ছিলেন, বিশিষ্ট সাংবাদিক বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের কেন্দ্রীও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো: আবুল খায়ের খান, তিনি বলেন ১৯শে ফেরুয়ারি নোয়াখালী কেম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুইপক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে যারা নৃশংস ভাবে হত্যা করল তাদেরকে বিচারের আওতায় এনে সঠিক বিচারের দাবি জানাই। তা নাহলে আমাদের আন্দোলন আরও বেগবান হবে এবং আস্বামীদের বিচারের দাবীতে রাজপথে থাকব ইনশাল্লাহ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাবেক শিবচর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা এস এম ফারুক,

এছাড়াও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন,বিশিষ্ট সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী মো: মিরাজ মোল্যা, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম শিবচর শাখার সহ-সভাপতি মো: রুবেল আহম্মেদ,সাধারণ সম্পাদক অপূর্ব চৌধুরী জয়,
যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো:শাহিন মোল্লা, কার্যকারী সদস্য মো:সাইদুজ্জামান নাসিম প্রমূখ।

 

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার বিকালে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ চলাকালে সংবাদ সংগ্রহের সময় গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির। শনিবার রাত পৌনে ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহত মুজাক্কির দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার ও অনলাইন পোর্টাল বার্তা বাজারের প্রতিনিধি ছিলেন। তিনি উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের নোয়াব আলী মাস্টারের ছেলে। নোয়াখালী সরকারি কলেজ থেকে সম্প্রতি রাষ্ট্র বিজ্ঞানে মাস্টার্স শেষ করে সাংবাদিকতায় যুক্ত হয়েছিলেন মুজ্জাকির।