নির্বাচনকে কেন্দ্রকরে কুয়াকাটার এসএসপি’র সদস্য সাংবাদিক সাইমুনের উপর হামলা

News News

Desk

প্রকাশিত: ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৪, ২০২০

 

কুয়াকাটা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ তৈয়ব খা তার কিছু ছেলে ও সন্ত্রাসী বাহিনীর ধারা ২নং ওয়ার্ডের পাঞ্জাবি মার্কা নাসির আকনের বাসার সামনে গিয়ে রাত আনুমানিক ৯ টা ১৫ মিনিটে সময় বিভিন্ন ধরনের রান্ধা, ছোটা, লাঠি, নিয়ে ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নাসির আকন এর বাসায় গিয়ে তার লোকজনের উপর এলোপাতাড়ি মারধর করতে থাকেন। পরবর্তীতে সাংবাদিক সাইমুন ইসলাম উপস্থিত হলে তাকেও মারধর করতে থাকেনও তাঁর হাতের মুঠোফোন ছিনিয়ে নেন । পরবর্তীতে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য তুলাতুলি হাসপাতাল গেলে তৈয়ব খার ছেলে মিরাজ, খলিল ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীরা সাংবাদিক মোহাম্মদ সাইমুন ইসলামকে জীবননাশের হুমকি দেন, পরে তুলাতুলি হাসপাতালের বাইরে আসতে বলায় বাইরে না যাওয়ার কারনে তুলাতলী হাসপাতালের ভিতরের লাইট বন্ধ করে তৈয়ব খার ছেলে মিরাজ খা (২৫) ও আইয়ূব খা (৪৫) খলিল আকন (২৩) শুক্কুর আকন (৫৭) মামুন (২২) জাফর (৪৫) ফেরদৌছ (২৫) ইব্রাহিম (২৮) আনু গাজি (৩৮) রুহুল মোল্লা (২৬) আব্দুর রহিম (২৩) মোফাসেল (২৭) শামিম (২৪) ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীরা সাংবাদিক মোঃ সাইমুন ইসলাম ও তার ভাই বনি আমিন এর উপর অতর্কিত হামলা করেন সেখানে নার্স, ডাঃ সহ অনেকেই আহত হন।

সাংবাদিক সাইমুন

পরবর্তীতে নার্স ডক্টররা বলেন আমাদের জীবনের কোন নিশ্চয়তা নাই আমরা আর হসপিটালের চিকিৎসা দিতে পারব না জীবনের ঝুঁকি নিয়ে, সেখানে মহিপুর থানা ওসি ও এস আই তারেক ও ডিএসবি রাশেদ সহ আরো কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন পরবর্তীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে তুলাতলী হসপিটাল থেকে তাদের কে রেফার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য কলাপাড়ায় নেওয়া হয়।