নজরুলের স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য হওয়ার খোয়াব

News News

Desk

প্রকাশিত: ১০:৩১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

প্রতিষ্ঠার ৭০ বছর পূর্ণ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মনে দলকে নিয়ে নানা পরিকল্পনা ও স্বপ্নের সঙ্গে কিছু দুর্ভাবনাও ছিল। সাত দশকে দলটির গৌরব, ঐতিহ্য, সাফল্য ও অর্জনের অজস্র ইতিহাস ও স্মারক থাকলেও গত বছরে প্রথম যোগ হয় দলে অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়টি। কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে শুরু করে দলের তৃণমূল-সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মাথাব্যথার বিশেষ কারণ অনুপ্রবেশকারীরা।

তাদের অভিযোগ, ক্ষমতায় থাকার সুবাদে দলের নাম ভাঙিয়ে ফায়দা লুটে নেওয়ার পাশাপাশি বহিরাগতরা দলের ভাবমূর্তিকেও প্রশ্নবিদ্ধ করছে।ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের তৃণমূলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের অভিযোগেও উঠে আসে দলের নাম ভাঙিয়ে অনুপ্রবেশকারীদের বিতর্কিত কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়ার কথা। অনুপ্রবেশকারী নিয়ে এত বিতর্ক থাকার পরেও এরই মধ্য অভিযোগ উঠেছে সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় নব্য বি এনপি থেকে আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে। নজরুল ইসলাম সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের আমডাঙ্গা গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি ও তার পরিবার দীর্ঘদীন যাবত বিএনপির রাজনীতির সাথে ঘনিষ্টভাবে জড়িত। নজরুল হাটিকুমরুল ৯ নং ওয়ার্ড আমডাঙ্গা বিএনপির কার্যকরী ২৭ নং সদস্য ছিলেন। তার বাবা শফিকুল ইসলাম হাটিকুমরুল ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সহ-সভাপতি। তার নামে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের নিকট চাঁদা দাবি-আ.লীগ কার্যালয় ভাঙচুরের অভিযোগ ও রয়েছে ।
অভিযোগ উঠেছে নজরুল দলে অনুপ্রবেশ করতে না করতেই দৌড়ঝাপ শুরু করেছে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের উপ-কমিটির সদস্য হওয়ার জন্য । জানা যায় নজরুল এর আগেও দু এক টি আওয়ামীর অঙ্গ সংগঠনের পদের জন্য দৌড়ঝাপ দিয়ে ব্যার্থ হয়।
এই বিষয়ে হাটিকুমরুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল্লাহেল কাফি ও ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুল মান্নান মন্ডল জানান, আমরা কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি / সাধারন সম্পাদক বরাবর গত ৩০/১২/২০১৯ ইং তারিখে লিখিত ভাবে অবগত করেছিলাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দলের ভিতরে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছে, ঠিক সেই মুহূর্তে যদি অনুপ্রবেশকারীরা কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের উপ কমিটির সদস্য পদ পায় তাহলে তৃণমূলের ত্যাগী কর্মীরা হতাশা গ্রস্থ হবে।