গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মাহুতি দিয়েছেন এক সাংবাদিক

News News

Desk

প্রকাশিত: ১০:৫১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০২০

রাশিয়ায় নিঝনি নোভগোরোদ শহরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় কার্যালয়ের সামনে গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মাহুতি দিয়েছেন এক সাংবাদিক।

বাড়িতে আচমকা পুলিশী তল্লাশির পরদিনই আত্মহত্যা করেন সাংবাদিক ইরিনা স্লাভিনা। নোভগোরোদ শহরের স্থানীয় ‘কোজা প্রেস’ নিউজ ওয়েবসাইটের প্রধান সম্পাদক ছিলেন তিনি।

মৃত্যুর আগে ইরিনা নিজেই ফেইসবুকে বলে গেছেন, ‘‘আমার মৃত্যুর জন্য আপনারা রুশ ফেডারেশনকে দায়ী করুন।’’ রুশ কর্তৃপক্ষ মারাত্মক দগ্ধ অবস্থায় ইরিনার মৃতদেহ পাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে।

ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, নভগোরোদ শহরের গোর্কি স্ট্রিটের একটি বেঞ্চের ওপর দাঁড়িয়ে শরীরে আগুন ধরাচ্ছেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গেই দৌড়ে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করছেন এক ব্যক্তি। তবে ইরিনা তাকে বারবার ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দিচ্ছেন।

সরকারবিরোধী গণতন্ত্রপন্থি গোষ্ঠী ‘ওপেন রাশিয়া’ সংক্রান্ত নথিপত্র খুঁজতে পুলিশ গত বৃহস্পতিবার ইরিনার বাড়িতে হানা দিয়েছিল।

তিনি তার ওয়েবসাইটে ‘সেনসরশিপের’ বিরুদ্ধে এবং ‘উপর মহল থেকে কোনওরকম নির্দেশের’ বিরুদ্ধে প্রচার চালিয়ে আসছিলেন। গতবছর একটি নিবন্ধে ‘রুশ কর্তৃপক্ষকে অবমাননা’র অভিযোগে ইরিনাকে জরিমানা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে বিবিসি।

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় সদস্যরা বলেছেন, ইরিনা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে চাপের মুখে ছিলেন। সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডের জন্য গত বছর তিনি নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের নিপীড়নেরও শিকার হন।

মৃত্যুর আগের দিন ইরিনা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছিলেন, পুলিশ কর্মকর্তা ও তদন্তকারীরা তার বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে। তার নোটবুক, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ফোন বাজেয়াপ্ত করেছে। এমনকি স্বামী ও মেয়ের জিনিসপত্রও নিয়ে চলে গেছে।