‘নিজের বলার মত একটা গল্প ফাউন্ডেশন’র ১০০০তম দিন উদযাপন

News News

Desk

প্রকাশিত: ১০:৩২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০২০

অনলাইনে প্রতি ৯০ দিনে নির্দিষ্ট বিষয়ে উদ্যোক্তা তৈরীর লক্ষ্যে ১১টা ব্যাচে চারলক্ষ মানুষকে সম্পূর্ন বিনামূল্যের প্রশিক্ষন প্লাটফর্ম “নিজের বলার মত একটা গল্প ফাউন্ডেশন” এর একহাজারতম দিন পূর্তির আয়োজন অনুষ্ঠিত হলো দেশজুড়ে। দেশের ৬৪টি জেলার পাশাপাশি পৃথিবীর ৫০ টি দেশে সংগঠনটির উদ্যোক্তা প্রশিক্ষনার্থীরা একযোগে দিনটি পালন করেন।

কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকার কচিকাঁচার আসর মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রেসিডেন্ট ইকবাল বাহার জাহিদের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইপিডিসি ফাইন্যান্সের সিইও মমিন ইউ ইসলাম, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অফ কল সেন্টার এন্ড আউটসোর্সিং এর জেনারেল সেক্রেটারী তৌহিদ হোসেন, ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনসহ নানা পর্যায়ের গুনীজনেরা।

এছাড়া দিবসটিকে কেন্দ্র করে ঢাকার আয়োজনে শুভেচ্ছা জানাতে হাজির হন সংগঠনটির উপদেষ্টা পর্ষদ, দেশের টেক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্নধার, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক বিভিন্ন সংগঠনের কর্মী, সাংবাদিক, নিজের বলার মত একটা গল্প প্লাটফর্মের সফল কয়েকজন উদ্যোক্তা, ঢাকা জেলার ভলান্টিয়ার টিম সহ আমন্ত্রিত অতিথিরা। দেশের বিভিন্ন জেলার আয়োজনে ডিসি, ইউএনও, সমাজসেবা অধিদফতরের কর্মকর্তা, সমাজের গনমান্য ব্যক্তিরা অংশ নেন।

ইকবাল বাহার জাহিদ বলেন, “বাংলাদেশের ৬৪ জেলা ও ৫০টি দেশের প্রবাসী বাংলাদেশী সহ মোট ৪০০,০০০ তরুণ-তরুণীদেরকে ১১ টি ব্যাচের মাধ্যমে ৩৬০ টা কন্টেন্ট দিয়ে টানা ৯০ দিন করে বিনামূল্যে অর্থাৎ কোন ফি ছাড়া উদ্যোক্তা বিষয়ক, মূল্য বোধ, ভলান্টিয়ারিং ও ১০ টি স্কিলস নিয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে আমাদের প্লাটফর্ম থেকে। করোনার এই ভয়াবহ সময়ে যখন সবাই তাঁদের বিজনেস নিয়ে চিন্তিত, অনেকের সেল প্রায় বন্ধ তখন “নিজের বলার মতো একটি গল্প” গ্রুপের মাধ্যমে তৈরী দুলক্ষ মানুষকে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে অপার সুযোগ ও সম্ভাবনা, আবার ঘুরে দাঁড়ানোর !

একই সঙ্গে সুযোগ করে দিল ক্রেতাদের জন্য অনলাইনে কেনাকাটার। “আমরাই ক্রেতা আমরাই বিক্রেতা” এই স্লোগানে বেশ জমে উঠেছে এই অনলাইন হাট। নিজের বলার মতো একটা গল্প উদ্যোক্তা তৈরির পাশাপাশি করে যাচ্ছে মানবিক কাজও; যেমন অসহায় গৃহহীনকে ঘর বানিয়ে দেয়া, কিছু গরীব তরুনদের আর্থিক মূলধন দিয়ে সহায়তা করা, ৩৫০০ বন্যা কবলিত পরিবারের পাশে দাঁড়ানো, করোনা কালে ৮০০০ অসহায় মানুষের পাশে থাকা, ২০,০০০ ব্যাগ রক্ত প্রদান করা, সারা দেশে ৩৫,০০০ বৃক্ষরোপনের মাধ্যমে সবুজায়ন করা, ১৫০০০ এতিম-অসহায় শিশু ও বৃদ্ধকে ১ বেলা খাবারের ব্যবস্থা করা, ৪০০০ শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণের ব্যবস্থা করা সহ নানান উদ্যোগের মাধ্যমে।