৬ দফা দাবিতে জাতীয় তামাক চাষী-ব্যবসায়ীদের সংবাদ সম্মেলন : ঢাকা।

News News

Desk

প্রকাশিত: ১০:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: তামাক চাষীদের সুরক্ষা নীতিমালা, চলতি অর্থবছরের বাজেটে বিড়িতে বৃদ্ধিকৃত শুল্ক প্রত্যাহার, বিড়িতে অগ্রিম আয়কর বাতিল, দেশিয় শিল্প রক্ষা, বিড়িকে কুটির শিল্প ঘোষণাসহ ৬ দফা দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে বৃহত্তর রংপুর অঞ্চলের তামাক চাষী ও ব্যবসায়ীরা। সোমবার সকাল ১১ টায় ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে তামাক চাষী ও ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তামাক চাষী ও ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মাসুম ফকির। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, উত্তর বঙ্গের বিশেষ করে বৃহত্তর রংপুরের বেশির ভাগ মানুষ তামাক চাষ ও ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। এখানকার মাটিতে বালির পরিমাণ বেশি হওয়ায় অন্য কোনো ফসলের ফলন ভালো হয় না। ফলে আমরা তামাক চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করি।

তিনি বলেন, তামাক শুধু বিড়ি শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে প্রতি প্যাকেট বিড়িতে ৪ টাকা মূল্য বৃদ্ধি করায় বিড়ি কারখানগুলো বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। ফলে কারখানায় কর্মরত শ্রমিকরা যেমন বেকার হয়ে পড়ছে তেমনি আমাদের উৎপাদিত তামাক বিক্রয় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আমাদের উৎপাদিত হাজার হাজার টন তামাক নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এতে করে রংপুর অঞ্চলের তামাক চাষীরা মারাত্মক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, এই এলাকার মানুষের অন্য কোনো আয়ের পথ না থাকায় দেখা দেবে অভাব-অনটন। আবার ফিরে আসবে সেই মঙ্গা পরিস্থিতি। যা বর্তমান সরকারের জন্য কোনো ভাবেই কাম্য নয়। তাই হাজার হাজার তামাক চাষী ও ব্যবসায়ীদের ব্যবসা এবং বিড়ি শ্রমিকদের কর্মসংস্থান রক্ষার স্বার্থে বিড়ির উপর অতিরিক্ত শুল্ক প্রত্যাহার করার জন্য সরকার ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) জোর অনুরোধ করছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন তামাক চাষী ও ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. হামিদুল হক, সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম তুহিন, তামাক চাষী ও ব্যবসায়ী ওহিদুল ইসলাম, শ্রী চিত্ত রঞ্জন, শ্রী মোহন লাল রায় প্রমুখ।